ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া। ক্রোয়েশিয়ার হয়ে একটি করে গোল করেন ইভান পেরিসিচ ও মারিও মানজুকিচ। ফ্রি কিক থেকে ইংল্যান্ডের একমাত্র গোলটি করেন কিয়েরান ট্রিপিয়ের। ১৫ জুলাই ফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া।

অর্ধশত বছর আগে একবার পেরেছিল। এরপর আর পারেনি। এবার একটা সুযোগ ছিল। ইংলিশরাও আশায় বুক বেঁধে ছিল। তাদের ছেলেরা শিরোপা নিয়েই বাড়ি ফিরবে। কেনরা বাড়ি ফিরল ঠিকই কিন্তু খালি হাতে। শিরোপার এত কাছে এসেও দূরে চলে যেতে হলো তাঁদের। অথচ আর একটা ম্যাচ জিতলেই ফুটবল বিশ্বকাপের মুকুট নিজেদের করে নিতে পারত ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপের শিরোপা আপন ঘরে ফিরে যেত। ফুটবল ফিরত তার নিজের ঘরে। এর কিছুই তো হলো না! ফুটবল তার আপন ঘরে ফিরল না। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের আগে সেমিফাইনাল জিততে হয়। সেটাই তো জেতা হলো না। সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে ইংল্যান্ড। ক্রোয়েশিয়া-ফ্রান্স ফাইনাল ম্যাচটি মাঠের বাইরে বসেই দেখতে হবে ইংলিশদের।

শুরুটা অবশ্য জয়ের মতোই হয়েছে ইংল্যান্ডের। ম্যাচের ৫ মিনিটেই দুর্দান্ত ফ্রি কিক থেকে ইংল্যান্ডকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন কিয়েরান ট্রিপিয়ের। সমতায় ফিরতে মেলা সময় নেয় ক্রোয়েশিয়া। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৮ মিনিটে এসে ক্রোয়েশিয়াকে সমতায় ফেরান ইভান পেরিসিচ (১-১)। নাটকীয়ভাবে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময়ে। অতিরিক্ত সময়ের খেলাও যখন প্রায় শেষ হয়ে আসছিল তখনই জয়সূচক গোলটি করেন মারিও মানজুকিচ।

বিস্তারিত আসছে...



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews