খুলনা টাইটানসের বিপক্ষে চমৎকার এক শট খেলে এক বল হাতে রেখে ঢাকা ডায়নামাইটসকে জেতালেন জহুরুল ইসলাম। অথচ শেষ ওভারে যখন জেতার জন্য ৬ রান প্রয়োজন, তখন প্রথম দুই বলে শটই নিতে পারেননি তিনি। কিন্তু পঞ্চম বলে চাপহীন থেকে খেললেন রিভার্স স্কুপ, যেটা সচরাচর দেখা যায় না। এমন শট খেলার আগে নিজের কাছে ‘বাজি’ ধরেছিলেন জহুরুল। সেটায় সফল হয়ে ঢাকাকে শীর্ষে তোলায় তার উচ্ছ্বাসের মাত্রা ছিল সবার চেয়ে বেশি।

শেষ ওভারে ২২ গজে জহুরুলের সঙ্গে ছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন। ৬ বলে ৬ রান এটা আর এমন কী! কিন্তু খুলনার পেসার কার্লোস ব্র্যাথওয়েট প্রথম দুই বলে কোনও রান করতে দিলেন না জহুরুলকে। চতুর্থ বলে মোসাদ্দেক দৌড়ে একটি রান নিয়ে তাকে জায়গা করে দিলেন স্ট্রাইকিংয়ে। নিজেকে সহজ করতে ক্রিজে খানিকক্ষণ হাঁটাহাঁটি করলেন জহুরুল। শেষ ওভারের প্রথম দুটি বল স্কয়াল লেগে খেলতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছিলেন। এবার তিনি কী করেন, সেটাই ছিল দেখার। শেষ পর্যন্ত রিভার্স স্কুপ মেরে জয় উদযাপন করলেন।

উল্টো হয়ে স্কুপ করাটা বেশ কঠিন। জহুরুল সেই কাজটাই করেছেন বাজি ধরে। সংবাদ সম্মেলনে জয়ের পথে সেই জয়সূচক শটটির বর্ণনা দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন, ‘প্রথম দুটি বল আমি স্কয়ার লেগ দিয়ে চার মারতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ব্র্যাথওয়েটের বল ছিল দ্রুতগতির ও ইয়র্কারগুলো প্রায় নিখুঁত। চার মারার চিন্তা আমার ভুল ছিল। যদি এক রানের চিন্তা করতাম, তাহলে ব্যাটে লাগত। ম্যাচটায় আমি দলকে বিপদে ফেলে দিয়েছিলাম। পরে মনে হয়েছে- যেহেতু দুটি বলে ইয়র্কার করে সফল হয়েছে, আবারও ইয়র্কার করবে। থার্ড ম্যান যেহেতু উপরে, তাই আমি বাজি ধরেছিলাম যে ওইদিকে উল্টো স্কুপ করব। এই চেষ্টা করা ছাড়া আমার মাথায় অন্য কিছু আসেনি। সফল হয়েছি দেখে ভালো লাগছে।’

জাতীয় দলের হয়ে ১৪টি ওয়ানডের পাশাপাশি সাতটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন জহুরুল। ২০১৩ সালের পর কোনও ফরম্যাটে আর জাতীয় দলের হয়ে নামতে পারেননি। তারপরও ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে ফেরার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। মঙ্গলবার খুলনার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্যাট হাতে ৪৫ রান করলেন ৩৯ বলে। দলের বিপদের সময়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে জয়ও এনে দিলেন দলকে।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews