বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যয় সবচেয়ে বেশি। তারপরও এবার সামরিক খাতে রেকর্ড পরিমাণ বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাব করেছে দেশটির প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন।

স্থানীয় সময় সোমবার পেন্টাগন ২০১৯ সালে সামরিক খাতে ব্যয়ের জন্য ৬৬৮. ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বাজেট বরাদ্দ দেয়ার প্রস্তাব করেছে। যা দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সামরিক বাজেট।

এদিকে রেডিও তেহরানের খবরের বলা হয়েছে, চীন, রাশিয়া এবং উত্তর কোরিয়াকে মোকাবেলা করার জন্য সামরিক বাজেট বাড়াতে কংগ্রেসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পেন্টাগন। এই তিনটি দেশের পক্ষ থেকে সামরিক হুমকি বেড়ে যাওয়ার কারণে পেন্টাগন বিশাল এ বাজেট চেয়েছে।

আর পেন্টাগন বলছে, বিশাল এ বাজেট বরাদ্দ হলে মার্কিন পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচিও জোরদার করা হবে। পরমাণু অস্ত্র খাতে বাড়তি বাজেট চাওয়া হয়েছে তিন হাজার কোটি ডলার। ২০১৭ সালে আমেরিকা সামরিক খাতে যে বাজেট বরাদ্দ দিয়েছিল তার চেয়ে এবার আট হাজার কোটি ডলার বেশি বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

মার্কিন উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেভিড এল. নরকুইস্ট জানান, চীন ও রাশিয়ার পক্ষ থেকে হুমকি মোকাবেলার জন্য এ বাজেট বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে। তিনি দাবি করেন, বিশ্বব্যাপী চীন ও রাশিয়া তাদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চালাচ্ছে।

বিডিপ্রতিদিন/ ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/ ই জাহান



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews