সোমবার এক বিবৃতিতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “শ্রমজীবী মানুষ ও শিল্পবিরোধী এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে শ্রমিক-কর্মচারীদের শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক কর্মসূচিকে আমরা সমর্থন জানাচ্ছি।”

দীর্ঘদিন ধরে লোকসানে থাকা রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পাটকলগুলোর ২৫ হাজার শ্রমিককে ‘গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের’ মাধ্যমে বিদায়ের সিদ্ধান্ত রোববার জানায় সরকার।

পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী জানিয়েছেন, এই পাটকলগুলো পরে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের (পিটপি) মাধ্যমে পুনরায় চালু হবে।

মহামারীকালে চাকরি হারিয়ে খুলনার পাটকল শ্রমিকরা ইতোমধ্যে আন্দোলনে নেমেছেন। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ফের চালু হলে চাকরি পাওয়ার আশ্বাসে ভরসা করছেন না তারা।

সন্তানদের নিয়ে অবস্থান কর্মসূচিতে খুলনার পাটকল শ্রমিকরা  

সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে ফখরুল বলেন, “করোনাভাইরাস সঙ্কটকালে দরিদ্র শ্রমজীবী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পরিবর্তে ২৬টি পাটকলের শ্রমিক এবং তাদের পরিবারের লক্ষ লক্ষ নারী পুরুষ ও শিশুকে নিশ্চিত মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া অমানবিক এবং অন্যায়।

“আমরা যখন শ্রমিক-কর্মচারীদেরকে ছাঁটাই না করে সব শিল্প রক্ষার জন্য সরকারি সহায়তা ও সহজ শর্তে ঋণ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি এবং সিপিডিসহ গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন আইন করে এ দুঃসময়ে শ্রমিক ছাঁটাই কিম্বা কারখানা বন্ধ না করার দাবি জানাচ্ছে, তখন সরকারের এমন গণবিরোধী সিদ্ধান্ত নাগরিকদের প্রতি দায়িত্বহীনতার পরিচায়ক।”

পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews