এই সময়ে সম্পদ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে অ্যামাজন প্রধান জেফ বেজোস এবং ফেইসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গের। বেজোসের সম্পদ বেড়েছে তিন হাজার ৪৬০ কোটি মার্কিন ডলার। আর জাকারবার্গের সম্পদ বেড়েছে আড়াই হাজার কোটি ডলার-- খবর সিএনবিসি’র।

১৮ মার্চ থেকে শুরু করে ১৯ মে পর্যন্ত লকডাউনের সময় ফোর্বস-এর ডেটার ওপর ভিত্তি করে যুক্তরাষ্ট্রের ছয়শ’র বেশি বিলিওনেয়ারের সম্পদ বিশ্লেষণ করে ‘আমেরিকানস ফর ট্যাক্স ফেয়ারনেস’ এবং ‘ইনস্টিটিউট ফর পলিসি স্টাডি’র ‘প্রোগ্রাম ফর ইনইকুয়ালিটি’ যৌথভাবে প্রকাশ করেছে এই প্রতিবেদন।

বৈশ্বিক এই সংকট এবং অর্থনীতির বেহাল দশাতেও বড় বড় প্রতিষ্ঠান, বিশেষভাবে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান কীভাবে ফায়দা তুলে নিয়েছে তা উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

প্রতিবেদনের দাবি অনুসারে, দুই মাসে মার্কিন বিলিওনেয়ারদের সম্পদ বেড়েছে গড়ে ১৫ শতাংশ করে।

দুই মাসে বিলিওনেয়ারদের তালিকায় শীর্ষ পাঁচে থাকা বেজোস, বিল গেটস, জাকারবার্গ, ওয়ারেন বাফেট এবং ল্যারি এলিসনের মোট সম্পদ বেড়েছে সাত হাজার ছয়শ’ কোটি মার্কিন ডলার।

সম্পদ বৃদ্ধির হিসাবে এগিয়ে রয়েছেন টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক। দুই মাসে তার সম্পদ ৪৮ শতাংশ বেড়ে তিন হাজার ছয়শ’ কোটি মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

বৃদ্ধির হারে ইলন মাস্কের পরেই রয়েছেন জাকারবার্গ। তার সম্পদের পরিমাণ ৪৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে আট হাজার কোটি মার্কিন ডলারে।

অন্যদিকে দুই মাসে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বেজোসের সম্পদ বৃদ্ধির হার ৩১ শতাংশ।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews