কুয়ো জানিয়েছেন, অ্যাপল ‘সাব-গিগাহার্টজ এবং সাব-৬গিগাহার্টজ-প্লাস-এমএমওয়েভ ৫জি আইফোন মডেল নিয়ে আসবে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে। অ্যাপল ইনসাইডারের এক প্রতিবেদন বলছে, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জাপান ও কোরিয়ার বাজারে পাওয়া যাবে ‘১২ এমএমওয়েভ’ মডেলগুলো।

৫জি ক্ষমতাসম্পন্ন আইফোন ১২’তে ছবির জন্য উন্নত ‘সেন্সর-শিফট স্ট্যাবিলাইজেশন’ প্রযুক্তির দেখা মিলতে পারে। ওই প্রযুক্তির বদৌলতে কোনো প্রকার বিকৃতিসাধন ছাড়াই একটি ক্লিকের মাধ্যমেই স্থিতিশীল ছবি ধারণ করা যাবে। বর্তমানে আইফোন ১১ প্রো মডেলে ছবি ও ভিডিও ধারণের জন্য ‘অপটিকাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন’ প্রযুক্তি রয়েছে।

কিন্তু ‘সেন্সর-শিফট প্রযুক্তি’ এলে এটি বদলে যাবে। কারণ, ওই প্রযুক্তিতে ক্যামেরা সেন্সর নয়, সরাসরি নির্দিষ্ট লেন্সে ‘স্ট্যাবিলাইজেশন’ প্রযোগ হবে।

কিছুদিন আগেই জে.পি. মরগান বিশ্লেষক সামিক চ্যাটার্জি দাবি করেছেন, অ্যাপল ৫জি সংযুক্তির ৫.৪ ইঞ্চি আকারের একটি আইফোন, ৬.১ ইঞ্চি আকারের দুটি আইফোন এবং ৬.৭ ইঞ্চি আকৃতির একটি আইফোন বাজারে আনবে ২০২০ সালে।

এ ছাড়াও এমএমওয়েভ সমর্থন করবে এমন দুটি ‘হাই-এন্ড’ মডেল নিয়ে আসবে প্রতিষ্ঠানটি এমন ভবিষদ্বানী জানিয়েছিলেন চ্যাটার্জি। ‘তিন-লেন্সের ক্যামেরা’ এবং আরও উন্নত ‘অগমেন্টেড রিয়ালিটি’ ক্ষমতার থ্রিডি সেন্সিং প্রযুক্তি আসরবে বলেও জানান তিনি।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews