বাবরি মসজিদ মামলার রায় নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে দলের কোনো নেতা মুখ খুলতে পারবেন না। তৃণমূল ভবনে বর্ধিত ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে দলের বিধায়ক ও সাংসদদের এ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জি

এদিকে আগামী ১৭ নভেম্বর অবসর নেবেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। তার আগে ছয়টি গুরুত্বপূর্ণ মামলার রায় শোনাবেন তিনি। মমতা ব্যানার্জি বৃহস্পতিবার দলীয় বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, রায় কী হবে না হবে, জানি না। কিন্তু রায় বের হলে যেন কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি না হয়, সেজন্য দলের সকলকে সতর্ক থাকতে বলেছি। শান্তি বজায় রাখতে বলেছি। আর সংবাদমাধ্যমকে এ বিষয়ে যা বলার, তা শুধু আমি বলব। আর কেউ বলবেন না। দলের সকলকে তা জানিয়ে দিয়েছি।

উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে উদ্দেশ্য করে মমতা বলেন, সংবাদমাধ্যমের সামনে এত কথা বলার কী আছে! বাবরি মসজিদ নিয়ে কেউ যেন কিছু না বলেন সেটাও জানিয়ে দেন তিনি।

এরই মধ্যে সে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা মানুষের কাছে আহ্বান জানিয়েছেন, রায় যাই হোক না কেন, শান্তি যেন বজায় থাকে। বাবরি মসজিদ এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে ১২ হাজার পুলিশ।

রাজ্যের প্রশাসনও সব রকম প্রস্তুতি নিচ্ছে। মামলার রায়ের পর আইনশৃঙ্খলার যাতে অবনতি না হয়, তার জন্য রাজ্য পুলিশকে নজরদারি চালিয়ে সক্রিয় পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিশেষত, সংবেদশীল এলাকাগুলিতে শান্তিরক্ষা কমিটিগুলিকে সক্রিয় করে তোলার কথাও বলা হয়েছে। নজর রাখতে বলা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ওই সময় তার কর্মসূচিও রয়েছে। দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদহ ও মুর্শিদাবাদে প্রশাসনিক বৈঠকের সূচি করা রয়েছে। কিন্তু পরিস্থিতি কী হয় তা দেখে নিয়ে ওই সময়ে মুখ্যমন্ত্রী জেলা সফরে যাবেন কিনা তা ঠিক করবেন।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews