হারিকেন ফ্লোরেন্স: বহু লোক সরে গেলেও বন্দীরা কারাগারে

আটলান্টিক মহাসাগরে সৃষ্ট  হারিকেন ফ্লোরেন্স যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকুলে আঘাত হানতে শুরু করেছে। হারিকেনটি দুর্বল হয়ে নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এই অঙ্গরাজ্য দুটির ১৭ লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, জলোচ্ছ্বাস আর বৃষ্টির ফলে নিউ বার্ন নামে একটি উপকূলীয় শহরের কিছু অংশ ৯ ফুট পানির নিচে চলে গেছে। এছাড়া অন্তত দুই লাখ লোকের বাড়িতে বিদ্যুৎ নেই। 

নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনার লোকজনকে নিরাপদ জায়গায় সরে যাওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কিন্তু নর্থ ক্যারোলাইনায় কমপক্ষে দুটি কারাগারের বন্দীদের নিরাপদ আশ্রয়ে নেওয়া হয়নি। তবে সাউথ ক্যারোলাইনা এবং ভার্জিনিয়ার কিছু কারাগার থেকে বন্দীদের ইতিমধ্যেই নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

স্যাটেলাইট থেকে তোলা ছবি

নর্থ ক্যারোলাইনায়র কারাগারের কর্মকর্তারা জানান, কারাবন্দীদের অন্য কোনো জায়গায় নেওয়া হবে না। কারণ অতীতের অভিজ্ঞতা থেকে তারা মনে করছেন, অন্য কোথাও নেওয়ার চেয়ে কারাগারেই নিরাপদ থাকবে বন্দীরা।

কারাগারের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বন্দীদের অন্য কোনো জায়গায় সরিয়ে নেওয়াটা ব্যয়বহুল। এছাড়া বন্দীদের সরিয়ে নিতে অনেক লোকবল প্রয়োজন, দুর্যোগের সময় সেই লোকবল পাওয়াও কঠিন।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে হারিকেন ক্যাটরিনা যখন যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছিল, তখন কারাগারগুলোতে হাজার হাজার কয়েদী বিপদে পড়েছিল। এতে করে  সেসময় কমপক্ষে ১ হাজার বন্দীর মৃত্যু হয়েছিল। খবর: বিবিসি

ইত্তেফাক/জেডএইচ



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews