মাসখানেক আগেই ভারতের ওড়িশায় ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ফণী। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই এবার গুজরাট উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় বায়ু। ইতোমধ্যেই গুজরাটের উপকূলীয় এলাকায় চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

কচ্ছ থেকে শুরু করে দক্ষিণ গুজরাটের একটি বিস্তীর্ণ এলাকা উপকূলের মধ্যে পড়ে। সেখানে আগাম সতর্কতা হিসেবে স্কুল কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বুধবার থেকেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন।

এর আগে গত মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, ঘূর্ণিঝড় বায়ু আছড়ে পড়ার পর কী ধরনের জটিলতা তৈরি হতে পারে তা ইতোমধ্যেই খতিয়ে দেখা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে গুজরাটের জন্য বিস্তারিত পরামর্শ বার্তা পাঠানো হয়েছে। এদিকে ইতোমধ্যেই কেরালায় ভারী বর্ষণ শুরু হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে যে, বৃহস্পতিবার ঘূর্ণিঝড়টি পোরবন্দর এবং মাহবুবার মাঝামাঝি কোথাও আছড়ে পড়বে। এতে রাস্তা-ঘাট এবং ফসলের ব্যাপক ক্ষতিক্ষতির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তাছাড়া এই ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে বাড়িঘর ভেঙে পড়তে পারে বলেও প্রশাসনের তরফ থেকে সতর্ক করা হয়েছে।

বুধবার সকালেই জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাদের জামনগরে মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি বিএসএফকেও কাজে লাগানো হবে বলে জানানো হয়েছে।

গুজরাট এবং দমন দিউ মিলিয়ে মোট তিন লাখ লোককে স্থানান্তরিত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। মোট ৭শ কেন্দ্রে এসব মানুষকে সরিয়ে নেয়া হবে।

টিটিএন/জেআইএম



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews