ছাত্র নির্বাচনকে কলঙ্কিত করতে ডাকসু নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেছেন, ‘ভোট কারচুপি করতেই হলে ডাকসু নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। হলে সরকারি দলের ছাত্র সংগঠন ছাড়া অন্য কোনও দলের ছাত্র সংগঠনের নেই। তাই অন্য কোনও দল এই নির্বাচনে ভোট দিতে যেতে পারবে না।’

সোমবার (১১ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরাম এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। এতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সব রাজবন্দিদের মুক্তির দাবি জানানো হয়।

বিএনপি নেতা বলেন, ‘সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠন ছাড়া অন্য ছাত্র সংগঠনগুলো দাবি করেছিল একাডেমিক ভবনে ভোটগ্রহণ করা হোক। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের এই দাবির প্রতি কোনও সম্মান করেনি। তারা পূর্ব পরিকল্পিত ছকটি মেনে,হলে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছেন। যাতে সাধারণ ছাত্ররা আতঙ্কে ভোট দিতে যেতে না পারে।’

হাফিজ উদ্দীন বলেন, ‘বাংলাদেশে যত ধরনের অপরাধ হচ্ছে ভালো করে খোঁজ নিয়ে দেখলে দেখা যাবে সেখানে কোনও ছাত্র নেতা জড়িত আছে। এ অবস্থায় ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু হবে এটা আমরা মনে করি না।’

সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলাম এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমতউল্লাহ,জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শুয়াইব আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews