মৌলভীবাজারে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও আইন শৃংখলাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা বলেন, অন্যদেশে নির্বাচনে ভোটার ভোট দেয়। জয়-পরাজয় নির্ধারণের পর যে যার দায়িত্ব পালনে চলে যায়। কিন্তু আমাদের দেশে ভোট কেন্দ্রে লাঠিসোটা নিয়ে যাওয়ায় যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করে। নির্বাচনে এই অবস্থার অবসান হতে আর বেশী দিন সময় লাগবে না।

বৃহস্পতিবার বিকেলে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে মাঠ পর্যায়ের নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও আইন শৃংখলাবাহিনীর কর্মকর্তা এবং সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার এই সব কথা বলেছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, নির্বাচনের ক্ষেত্র সৃষ্টি করে দেওয়া নির্বাচন কমিশনের কাজ। ভোটার কেন্দ্রে না এলে নির্বাচন কমিশনের করার কিছু নেই।

উপস্থিত কর্মকর্তাদেরকে লক্ষ্য করে তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচনের পর স্থানীয় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চলছে। নির্বাচন পরিচালনায় নির্বাচন কমিশন থেকে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের দায়িত্ব বেশী। কোন অবস্থাতেই যেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনের নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এছাড়া কোন এজেন্ট কিংবা প্রার্থীকে কেউ যেন কেন্দ্র থেকে বের করে দিতে না পারে। ভোটারা যেন ঠিকমত ভোট দিয়ে বাড়িতে যেতে পারে সে দিকে আইনশৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিতদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেটের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন, মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের একান্ত সচিব মাজহারুল ইসলাম, শ্রীমঙ্গল সেক্টর কমান্ডার লে. ক. আরিফ, জেলা নির্বাচন অফিসার মঞ্জুরুল আলম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরুজ্জামান, জুড়ীর অসীম কুমার বণিক, রাজনগরের ফেরদৌসি আক্তারসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews