নীলফামারীতে শীতের আবহ সৃষ্টি হয়েছে। এখানের মেঘমুক্ত নীলাভ আকাশে জ্বলজ্বল করছে সূর্যকিরণ। স্বচ্ছ আকাশে দৃশ্যমান হালকা সাদা মেঘের ভেলা।

এ সময় পঞ্চগড় ও নীলফামারীর বিভিন্ন স্থান থেকে উত্তরের দিকে তাকালে সহজেই দেখা মিলছে হিমালয়ের কাঞ্চনজঙ্ঘা চূড়ার অপরূপ দৃশ্য।কাঞ্চনজঙ্ঘা চূড়ার দৃশ্যে মুগ্ধ এখন পঞ্চগড় ও নীলফামারীর মানুষ। আর এ দৃশ্য দেখার জন্য এ দুই জেলার মানুষ ছাড়াও আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রকৃতিপ্রেমী মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন সীমান্তবর্তী খোলা উঁচু স্থানে।গত কয়েক বছর ভালোভাবে দেখা না মিললেও এবার খালি চোখেই দেখা মিলছে সেই হিমালয় পর্বতের কাঞ্চনজঙ্ঘা চূড়ার। আগে হিমালয় পর্বতের কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখতে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় যেতে হতো। কিন্ত এখন নীলফামারীর চিলাহাটি, ডিমলার তিস্তা নদী ও নীলফামারী সদরের ইটাখোলার ফাঁকা স্থানে দাঁড়ালেই কাঞ্চনজঙ্ঘার বরফশুভ্র গায়ে সূর্যকিরণে চকচকে উজ্জ্বল পাহাড়ের দৃশ্য দেখা যাচ্ছে।এজন্য বাইনোকুলারের প্রয়োজন পড়ছে না। তাই মোহনীয় এই দৃশ্য উপভোগ করছেন সাধারণ মানুষজনও।এলাকার লোকজন জানান, আকাশে যখন মেঘ থাকে না, আবার কুয়াশা পড়াও শুরু হয় না- শুধু তখনই আমাদের এলাকা থেকে দেখা যায় বরফে ঢাকা ধবল পাহাড়ের চূড়া কাঞ্চনজঙ্ঘা।সকাল ৮টা থেকে সূর্যকিরণ যখন উঠতে থাকে তখন স্পষ্ট হয়ে ধরা দেয় কাঞ্চনজঙ্ঘা। সকাল ১০টা পর্যন্ত দেখা যায় এ শৃঙ্গটি। তারপর আস্তে আস্তে ঝাপসা হতে থাকে কাঞ্চনজঙ্ঘা।শেষ বিকালে সূর্যকিরণ আবার যখন তির্যক হয়ে পড়ে বরফ পাহাড়ে, তখন আবারও অন্য এক মহিমায় মানুষের চোখে ধরা পড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা চূড়াটি।



Contact
reader@banginews.com

Bangi News app আপনাকে দিবে এক অভাবনীয় অভিজ্ঞতা যা আপনি কাগজের সংবাদপত্রে পাবেন না। আপনি শুধু খবর পড়বেন তাই নয়, আপনি পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে উপভোগও করবেন। বিশ্বাস না হলে আজই ডাউনলোড করুন। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি।

Follow @banginews